Small Business Ideas in Bangla | কম বিনিয়োগের সাথে এই ধরনের 5 টি ছোট ব্যবসার ধারণা, আপনিও ধনী হয়ে যাবেন।

Low Investment Small Business
Spread the love

বন্ধুরা আমরা সবাই জানি যে, এখন বাজারে জিনিসের দাম কেমন পরিমাণে বাড়ছে এবং হয়তো আমরা সবাই এরকম এখন ফেস করছি যে, আমাদের মাসে যে ইনকাম আমরা করি, সেই টাকায় কিন্তু এখন সংসার চালানো আমাদের পক্ষে খুব কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তো এই সময়ে দাঁড়িয়ে একটা ছোটখাটো যদি বিজনেস আমরা করতে পারি, তাহলে কিন্তু তার থেকে ভালো কিছু হয় না।  এবার আমি বলছি না যে, তোমাদের বিজনেস করার জন্য তোমরা যদি কোন রকমের চাকুরী করে থাকো তাহলে সেটা ছেড়ে দিতে। আমি বলছি তোমরা চাকরির সাথে সাথে এরকম ভীষণ কম কিছু বিনিয়োগ করে তোমরা একটা বিজনেস তৈরি করতে পারো যেটা থেকে তোমাদের কিছু এক্সট্রা ইনকাম হতে পারে এবং তুমি এবং তোমার ফ্যামিলি মেম্বার সবাইকে তুমি ওটার মধ্যে কাজ করতে বলতে পারো, যাতে সবাই মিলে ছোট্ট একটা বিজনেস চালাতে পারে এবং মাসে যদি কিছু টাকা এক্সট্রা ইনকাম করা যায় তাহলে কিন্তু তার থেকে ভালো কিছু হতে পারে না।

আর তোমরা যদি জানতে চাও যে মিনিমাম চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা ইনভেস্ট করে, কিছু রকমের যদি বিজনেস তোমরা চালু করতে চাও, তাহলে আমাদের আজকে এই লেখাটা সঙ্গে সংযুক্ত থাকো। আমরা এই লেখাটা শেষ হওয়া পর্যন্ত তোমাদেরকে চার থেকে পাঁচ রকমের এরকম কিছু বিজনেস আইডিয়া তোমাদের সঙ্গে জানাবো যেটা তোমরা খুব সহজে চালু করতে পারবে এবং তার থেকে ভালো রকম কিছু ইনকাম করতে পারবে।

পরিবেশ বান্ধব পেপার ব্যাগ তৈরির ব্যবসা

বন্ধুরা সবার প্রথমে তোমাদের সঙ্গে আমি যেই বিজনেস এর কথা শেয়ার করব সেটা হচ্ছে পরিবেশ বান্ধব পেপার ব্যাগ তৈরির বিজনেস। আমি এই বিজনেসটা তোমাদের সঙ্গে কেন শেয়ার করছি, এটার পিছনে অনেক বড় একটা কারণ আছে। এখন আমাদের ভারত সরকার এবং আমাদের বাংলাদেশ সরকার কিন্তু প্লাস্টিকের ব্যবহার করার জন্য অনেক বেশি রোক লাগাচ্ছে। কারণ প্লাস্টিকের ব্যবহার করে আমাদের দেশের এত ক্ষতি হচ্ছে, চারিদিকের পরিবেশ দূষণ হচ্ছে, জলদূষণ হচ্ছে এবং এর ফলে কিন্তু আমাদের ফিউচার জেনারেশন এর প্রবলেম হতে চলেছে। 

তো এখন বাজারে পরিবেশ বান্ধব পেপার ব্যাগ এর চাহিদা কিন্তু দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে এবং আমরা যদি এখন কোন রকমের শপিংমলে যাই, তাহলে কিন্তু একটা পেপার ব্যাগটা দেওয়ার জন্য কিন্তু ওরা 5 থেকে 10 টাকা করে চার্জ করে প্রত্যেকটা কাস্টোমারের থেকে। তাহলে বুঝতে পারছ যে এখন আস্তে আস্তে বড় বড় শপিং মল এবং বড় বড় সব দোকানে পরিবেশবান্ধব পেপার ব্যাগ এর কতখানি পোটেনশিয়াল বাড়তে চলেছে। এবং তোমরা যদি এই পরিবেশবান্ধব পেপার ব্যাগ এর বিজনেস এখন শুরু করতে পারো তাহলে কত বেশি তোমাদের লাভ হতে পারে, তোমরা এটা খুব সহজে বুজতে পারছো।

ভীষণ কম টাকা ইনভেস্ট করে নিজের বাড়িতেই ছোট্ট একটা জায়গায় তোমরা এই বিজনেসটা চালু করতে পারো এবং নিজের আশেপাশের এর গ্রামে বা শহরে ছোটখাটো দোকানেও কিন্তু তোমরা এক টাকা, দু টাকায় বিক্রি করতে পারো। তোমার তৈরি করতে হয়ত 1 টাকা যদি তোমাদের খরচা পরে, তাহলে তোমরা ওটাকে আরাম সে 2 থেকে 3 টাকায় বিক্রি করতে পারবে। তারপরে যখন তোমরা দেখবে যে তোমাদের কিছু কিছু আয় হচ্ছে এই বিজনেস থেকে, তারপরে তোমরা বড় শহরে গিয়ে বড় বড় শপিং মলে, বড় বড় দোকানে তোমরা এটাকে আরো বেশি দামে এবং আরো বেশি পরিমাণে বিক্রি করতে পারবে। যাতে তোমাদের বিজনেস আরও বাড়বে ও আরও অনেক বেশি ইনকামের ব্যবস্থা হবে। 

কাপড়ের উপর আয়রন ব্যবসা

বন্ধুরা এরপরে আমি তোমাদের সঙ্গে যেই বিজনেস আইডিয়া টার কথা শেয়ার করতে চলেছি এটা খুবই একটা সহজ বিজনেস আইডিয়া এবং খুব কম পরিমাণ টাকা ইনভেস্ট করে আপনি এই বিজনেসটা চালু করতে পারেন। শুধুমাত্র এটার জন্য আপনার এরকম একটা জায়গায় দোকান থাকতে হবে, এরকম একটা জায়গায় বিজনেস স্টার্ট করতে হবে, যেখানে অনেক বেশি লোকেদের বসবাস এবং সেখানকার লোকেরা একটু হাই কোয়ালিটি লাইফ স্ট্যান্ডার্ড মেনটেন করে। তো সেরকম জায়গায় যদি আপনি একটা কাপড় আয়রন (কাপড় ইস্ত্রি) করার বিজনেস দিতে পারেন, তাহলে কিন্তু আপনার জন্য এটা খুবই একটা প্রফিটেবল বিজনেস হতে পারে।

কারন আজকালকার দিনে যারা অফিস কাছারি তে কাজ করে তারা কিন্তু তাদের জামা কাপড় ধোয়ার পরে ইস্ত্রি না করে কিন্তু তারা জামাকাপড় পরতে চায় না। এবং তার জন্য তারা তাদের জামাকাপড় কে আয়রন ম্যান (ইস্ত্রি করার লোক) এর কাছে নিয়ে যায়, যাতে সে ইস্ত্রি করে দিতে পারে। আপনি যদি তাদের জামাকাপড় ভালোমতো আয়রন করে, সময় মতন যদি তাদের বাড়িতে দিয়ে আসতে পারেন এবং পরের দিনের জামাকাপড় আবার আয়রন করার জন্য নিয়ে আসতে পারেন এবং এরকম যদি ভালো সার্ভিস দিতে পারেন, তাহলে কিন্তু আপনার এই আয়রন করার ব্যবসা টা কিন্তু খুব সহজে আপনি বাড়াতে পারবেন। এবং এটা আপনার জন্য খুব একটা ভালো বিজনেস আইডিয়া প্রমাণিত হতে পারে।

বাঁশ ও কলা পাতার বাসন এবং অন্যান্য পণ্য তৈরির ব্যবসা

বন্ধুরা আমরা এই আর্টিকেলটিতে অলরেডি তোমাদের সঙ্গে শেয়ার করেছি যে তোমরা কি করে পরিবেশ বান্ধব পেপার ব্যাগ তৈরি করে একটা ভালো বিজনেস করতে পারো। এবার বন্ধুরা যখন আমাদের ভারত সরকার এবং বাংলাদেশ সরকার যখন আমাদের প্লাস্টিকের ব্যবহার করতে মানা করছে, তখন কিন্তু আমরা চাইলে পরিবেশবান্ধব থালা বাসন তৈরি করতে পারি।

বন্ধুরা আমরা জানি যে আগেকার দিনে কলা পাতায় খাওয়া হতো এবং আরও বিভিন্ন রকমের গাছ পাতার ডাল দিয়ে এবং বাসের ডাল দিয়ে কিন্তু থালা বাসন তৈরি করা হতো। সেই দিন কিন্তু আবার ফিরে আসছে। তোমরা আবার চাইলে চাইলে বাঁশ এবং কলাপাতার বাসন তৈরি করে কিন্তু তোমরা আশে পাশের দোকানে দিতে পারো এবং ওটা থেকে ভালো ইনকাম করতে পারো। যেহেতু আস্তে আস্তে প্লাস্টিকের ব্যবহার কমে যাচ্ছে, তো মানুষ এইসব দিকে এগোচ্ছে। কলাপাতা এবং বাঁশ দিয়ে তৈরি করা বাসন পত্রে খেলে আমাদের শরীর ভালো থাকে এবং আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারি। তো তোমরা বুঝতেই পারছ যে, এই বিজনেস তার চাহিদা ভবিষ্যতে কত বেশি পরিমাণে বাড়তে চলেছে ।

best business ideas in west bengal | best business to start in rural area bangla | business ideas in bengali language | business ideas in kolkata in bengali | business ideas in rural areas in west bengal | home based low cost business in bangladesh | new business ideas in bangladesh | small business ideas for students in bangladesh | small business ideas in bangladesh with low investment | small manufacturing business ideas in bangladesh | Village business ideas bengali

পাটের ব্যাগ তৈরির ব্যবসা

আপনি যদি পাটের ব্যাগ তৈরির ব্যবসা শুরু করেন, তাহলে এই ব্যবসাটি খুব লাভজনক হতে পারে। পাটের ব্যাগ তৈরির ব্যবসা শুরু করতে আপনার কমপক্ষে 50 হাজার টাকা থেকে 1 লক্ষ টাকা খরচ হতে পারে। একবার এই ব্যবসা সফল হয়ে গেলে, এটি সর্বদা আপনাকে মুনাফা প্রদান করবে এবং আজকের সময়ে এই ব্যবসা শুরু করতে কোন ক্ষতি নেই, কারণ আজ এর চাহিদা অনেক বেশি। প্লাস্টিক তৈরিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর থেকে পাটের ব্যাগ প্রচুর বাজারে বিক্রি হচ্ছে। যে কোনো ধরনের পাটের ব্যাগ তৈরির প্রক্রিয়া খুবই সহজ এবং বিনিয়োগও ন্যূনতম পরিমাণে। আপনি চাইলে এই ব্যবসা করে প্রতি মাসে কমপক্ষে এক লাখ টাকা আয় করতে পারেন।

হাতে তৈরি পণ্য তৈরির ব্যবসা

আপনি যদি বাসায় থাকাকালীন ন্যূনতম বিনিয়োগের সাথে যেকোনো ধরনের ব্যবসা শুরু করতে ইচ্ছুক হন, তাহলে আপনি হাতে তৈরি পণ্য তৈরি করে আপনার ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি চাইলে পাপড় তৈরির ব্যবসা, আচার তৈরির ব্যবসা, হাতের সূচিকর্ম পেইন্টিং বা কারুশিল্প তৈরির ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এর বাইরে, আপনি বাড়িতেও পর্দা সেলাইয়ের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। আপনি যদি চান, আপনি সহজেই হাতে তৈরি পণ্যের অধীনে শিশুদের ইউনিফর্ম সেলাই বা ডিজাইন শুরু করতে পারেন। এটি আপনার ব্যবসাকে আরও বেশি উপকৃত করতে পারে।

আমাদের দ্বারা বর্ণিত সমস্ত ব্যবসায়িক ধারণাগুলি এমন, যা খুব কম বিনিয়োগে সহজেই শুরু করা যায়। আপনি যদি এই সমস্ত ধরণের ব্যবসা বেছে নেন, তাহলে আপনি ভবিষ্যতে এই ব্যবসাগুলি থেকে ভাল আয় করতে পারবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *